Total Care BD

Best Caring Website of Bangladesh

জেনে নিন কালোজিরার ১০ টি ঔষধি গুনাগুন

শেয়ার করুন

প্রাচীনকাল থেকে যে জিনিসটি সব রকমের রোগ নিরাময়ে ব্যাবহার হয়ে আসছে সেটি হল কালোজিরা । সাধারণত কালোজিরা নামে পরিচিত হলেও কালোজিরার আরো কিছু নাম আছে, যেমন- কালো কেওড়া, রোমান করিয়েন্ডার বা রোমান ধনে, নিজেলা, ফিনেল ফ্লাওয়ার, হাব্বাটুসউডা ও কালঞ্জি ইত্যাদি। কালোজিরার বৈজ্ঞানিক নাম nigella sativa। কালোজিরাকে বলা হয় সকল রোগের ওষুধ। মহানবী (স:) বলেছিলেন কালোজিরা মৃত্যু বাদে সকল রোগের ওষুধ। জ্বর, কফ, শরীরের ব্যথা দূর করার জন্য কালিজিরার গুনাগুনের শেষ নাই। মেধার বিকাশ ঘটাতে কালোজিরা দারুন কাজ করে। কালোজিরার নিজেরই রয়েছে অ্যান্টিবায়োটিক বা অ্যান্টিসেপটিক গুনাগুন । এছাড়া কালোজিরার ভর্তা আমাদের দেশে ব্যাপক জনপ্রিয় । এছাড়া কালোজিরার স্বাস্থ্য উপকারিতাও অনেক । ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া নিধন থেকে শুরু করে শরীরের কোষ ও কলার বৃদ্ধিতে সহায়তা করে কালোজিরা। শুধুমাত্র স্বাস্থ্যের জন্যই না কালোজিরা চুল ও ত্বকের জন্যও অনেক উপকারি।চলুন দেখে আসি কালোজিরার গুনাগুন →

কালোজিরার গুনাগুন

১। চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করে কালোজিরা

কালোজিরার তেল চুলের কোষ ও ফলিকলকে চাঙ্গা করে ও শক্তিশালী করে যার ফলে নতুন চুল সৃষ্টি হয়। এছাড়াও কালোজিরার তেল চুলের গোড়া শক্ত করে ও চুল পড়া কমায়। তাই চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে নিয়মিত কালোজিরা সেবন করতে পারেন ।

২। চুল পড়া কমায় কালোজিরা

চুল শ্যাম্পু করার পর শুকিয়ে নিন। এবার পুরো মাথায় কালোজিরার তেল ভাল মতো লাগান । এক সপ্তাহ নিয়মিত করলে চুল পড়া অনেক কমে যাবে। তাই চুল পড়া কমাতে কালোজিরার তেল ব্যাবহার করতে পারেন ।

কালোজিরার গুনাগুন

৩। মাথা ব্যাথা কমায় কালোজিরা

কালোজিরার তেল মাথা ব্যাথা সারাতে দারুন উপকারী । কালোজিরার তেল কপালে মালিশ করলে এবং তিন দিন খালি পেটে ১ চা চামচ তেল খেলে আরোগ্য লাভ করা যায় । তাই মাথা ব্যাথা কমাতে কালোজিরার তেল ব্যাবহার করতে পারেন ।

৪। ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে কালোজিরা

ত্বকের গঠনের উন্নতি ও ত্বকের প্রভা বৃদ্ধির জন্য কালোজিরা অত্যাবশ্যকীয়। এতে লিনোলেইক ও লিনোলেনিক নামের এসেনশিয়াল ফ্যাটি এসিড থাকে যা পরিবেশের প্রখরতা, স্ট্রেস ইত্যাদি থেকে আপনার ত্বককে রক্ষা করে এবং ত্বককে সুন্দর করে ও ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখে।
মধু ও কালোজিরার পেস্ট বানিয়ে ত্বকে লাগিয়ে আধাঘন্টা বা একঘন্টা রাখে ধুয়ে ফেলুন, এতে ত্বক উজ্জ্বল হবে।
যদি আপনার ব্রণের সমস্যা থাকে তাহলে আপেল সাইডার ভিনেগারের সাথে কালোজিরা মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। নিয়মিত লাগালে ব্রণ দূর হবে।
শুষ্ক ত্বকের জন্য কালোজিরার গুঁড়া ও কালোজিরার তেলের সাথে তিলের তেল মিশিয়ে ত্বকে লাগান। এক সপ্তাহের মধ্যে লক্ষণীয় পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

৫। দাঁতের ব্যাথা কমায় কালোজিরা

দাঁতে ব্যথা হলে কুসুম গরম পানিতে কালোজিরা দিয়ে কুলি করলে ব্যথা কমে; জিহবা, তালু, দাঁতের মাড়ির জীবাণু ধ্বংস হয় ।

৬। হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় কালোজিরা

Medical Science Monitor journal এ প্রকাশিত প্রতিবেদনের মাধ্যমে জানা যায় যে, নিয়মিত কালোজিরা খেলে মৃগীরোগ আছে এমন শিশুদের হৃদপিণ্ডের অ্যাটাকের ঝুঁকি কমে। কালোজিরায় খিঁচুনি বন্ধ করার উপাদান থাকে।

৭। উচ্চ রক্তচাপ কমায় কালোজিরা

যাদের উচ্চ রক্তচাপ আছে তারা দৈনিক কোন না কোন ভাবে কালোজিরা সেবনের চেষ্টা করুন, কারন কালোজিরা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। গরম ভাতের সাথেও কালোজিরার ভর্তা খেতে পারেন ।

৮। রোগ প্রতিরোধে কালোজিরা

কালোজিরা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। নিয়মিত কালোজিরা খেলে শরীরের প্রতিটি অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সতেজ থাকে। কালোজিরা যেকোনো জীবানুর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে দেহকে প্রস্তুত করে তোলে এবং সার্বিকভাবে স্বাস্থ্যের উন্নতি করে।

৯ । টাইপ ২ ডায়াবেটিস নিরাময় করে

গবেষণায় পাওয়া গেছে যে, প্রতিদিন ২ গ্রাম কালোজিরা খেলে রক্তের সুগার লেভেল কমায়, ইনসুলিনের বাধা দূর করে এবং অগ্নাশয়ে বিটা কোষের কাজ বৃদ্ধি করে। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে নিয়মিত কালোজিরা খেতে পারেন ।

১০ । যৌন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে কালোজিরা

কালোজিরা নারী ও পুরুষে উভয়ের যৌন ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে । বিশেষ করে পুরুষদের জন্য কালোজিরা খুব উপকারি । নিয়মিত কালোজিরা সেবনে পুরুষত্ব হীনতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় ।

এছাড়াও কালোজিরার আরও অনেক গুনাগুন রয়েছে ।
আশাকরি কালোজিরার গুনাগুন সম্পর্কে আপনাদের একটা ধারনা দিতে পেরেছি । তো আর দেরী কিসের ? সুস্থ্য থাকতে আজ থেকে নিয়মিত সেবন করুন কালোজিরা ।

পোষ্টটি ভালো লাগলে নিচের শেয়ার বাটন থেকে শেয়ার করে সবাইকে জানার সুযোগ দিন ।

শেয়ার করুন
Total Care BD © 2016